Chez Roopen‎ > ‎

Prashantada 24




প্রশান্তদা উবাচ ২৪

আবার প্রশান্তদার হোয়াটস্যাপ ফোন !

"শুনছি মোদী নাকি লাল কেল্লা বেচে দিলো -ছি ছি পাকিস্তানী বন্ধুদের কাছে মুখ দেখাতে পারছি না রে !"

" গুজবে কান দিবেন না. বারখা দাত ওয়াশিংটন পোস্টে লিখেছেন, শেখার গুপ্তাজি লিখেছেন ,এমনকি সুমনবাবুও ফেসবুকে পোস্ট করেছেন !"

"কিনতু গণশক্তির শিরোনাম তো হলো "মোদী বেচে দিলো লাল কেল্লা" !"

"আবার আমরা শুনছি আলিমুদ্দিন স্ট্রিটের নাম বদলে হবে সীতারাম স্মৃতি বিদ্যামন্দির , এই ভাবেই না গুজব ছড়ায় ।"

" বাছুররা নাকি জিন্নাহ সাহেবের ছবি সরিয়ে দেবে বলছে আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় , ছি ছি , ১৯৩৮ থেকে আছে ওই ছবি ।"

" ১৯৩৮ কোনো ব্যাপার নয় ।আদি অনন্ত কাল থেকে তো রাস্তাটার নাম ছিল বিশপ লেফ্রয় রোড , একজন ধর্মযাজকের নাম কেটে করলে সত্যজিৎ রায় ধরণী ! সত্যজিৎ বাবু বেঁচে থাকলে বলতেন হে ধরণী দ্বিধা হও !"

" এই তুই ফোনে দিদির ব্যাপারে কিছু বলবি না, ওরা ফোনে আড়ি পাতে ! কিন্তু তাই যদি হবে , তবে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে শ্যামাপ্রাসাদ বাবুর ছবি ঝুলবে কেন, উনিও তো ধোয়া তুলসী পাতা নন ?"

" উনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলেন, কংগ্রেসের নেতা , নেহরুর মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী , ওনার ছবি ঝুলবে, না কি টাঙানো থাকবে লাটুবাবুর ফটো কিংবা ইমাম বুখারীর তৈলচিত্র ?"

"কিন্তু আমাদের ঐতিহ্যকে আমরা ভুলে যাবো ? ভুলে যাবো জিন্নাহ সাহেবকে ?"

" শোনো বাবা, জিন্নাহ সাহেব আমার প্রিয় পাত্র ! তিনি আমাদের মতোই সূরা পান করতেন , দগ্ধ বরাহ মাংস সেবন করতেন, জন্মেছিলেন ইসমাইলি হয়ে , রাজনৈতিক তাগিদে তাকে মুসলিম লীগ সুন্নি সাজিয়ে চোগা চাপকান পরিয়ে , মোড়ক লাগিয়ে মুসলিম নেতা বানিয়েছিলেন ! তবে উনি আমাদের ইতিহাসের অঙ্গ ! কিন্তু ঐতিহ্য ? নৈব নৈবচ !
যদি তোর ভালো লাগে , তবে তোর শোবার ঘরে, জিন্নাহর ছবি লাগা , সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন ? উনি না পড়েছেন আলীগড়ে , না পড়িয়েছেন ওখানে , না দান করেছেন একটি ফুটো পয়সা ! উনি আমাদের দেশ বিভাজনের আর রক্তাক্ত দাঙ্গার ইতিহাস , উনি কোনোমতেই ঐতিহ্য নন ! জার্নাইল সিংহ ভিন্দ্রানওয়ালে তো দামদামি তাকশালের সর্বোচ্চ নেতা ছিলেন , আমরা কি ওনার তসবির ওখানে ঝুলিয়েছি ? চিয়াং কাইশেকের ছবি কি পিকিং বিশ্ববিদ্যালয়ে টাঙানো আছে? উনি তো প্রতিবেশী রাষ্ট্র তাইওয়ানের জাতির পিতা ? হাভানা বিশ্ববিদ্যালয়ে কি বাতিস্তার ছবি শোভা পাচ্ছে ? ইতিহাস আর ঐতিহ্য গুলিয়ে ফেললে আপনারাই ইতিহাস হয়ে যাবেন !"

" কিন্তু ঐতিহাসিক চরিত্রদের ভুললে চলবে কেন ?"

" না তাদের আমরা জাদুঘরে রাখবো, শিক্ষা প্রতিঠানে নয় , লর্ড ক্লাইভ থাকবেন জাদুঘরে , জিন্নাহ থাকবেন সালার জংগে , আলীগড়ে নয় , উনি আমাদের রক্তাক্ত ইতিহাসের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ কিন্তু উনি আমাদের ধর্মনিরপেক্ষ চেতনার শরিক নন ! জেরুসালেমের হোলোকায়ুস্ট মুসিয়াম গেলে হিটলারের ছবি এবং চলচ্চিত্র দেখতে পাবেন অথচ হাইফা বিশ্ববিদ্যালয়ে হিটলার নেই !"

"কিন্তু বাছুররা গোমূত্র খেয়ে কি সব করছে ?"

"বিতর্কে বেকায়দায় পড়লে এইসব ভাষা তো বেরোবেই ! আমি যদি বলি উষ্ট্রছানারা , পবিত্র উষ্ট্র চোনা পান করেছে , ভালো লাগবে ? কিন্তু তা বলবো না, বলবো উঠমুখো , যারা মাটির দিকে তাকায় না , যারা আকাশের দিকে তাকিয়ে হাঁটে , তাদের বাংলায় বলে উটমুখো , এটা তোমাদের চাঁদ বদন নিয়ে কোনো কটূক্তি নয় !"

" শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ধর্ম ঢুকবে কেন ?"

"আমার তো তাই প্রশ্ন !সরকারি প্রতিষ্ঠানে হিন্দু বা মুসলিম শব্দ ব্যবহার হবে কেন ? কেন বানারাস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয় , কেন আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়? হিন্দু, মুসলিম শব্দগুলি পরিত্যাগ করো !"

" না না এতদিনের মুসলিম ঐতিহ্য কেন বাদ দেব?"

"গুরু! যখন ইসলামিয়া কলেজের নাম বদলালে আগের জমানায়, মনে ছিল না, মাওলানা আজাদ কলেজের নাম কি ছিল অতীতে ?"

" তোর রাত হয়ে গেছে, কুকুর মেকুরের মাংসর ব্যাপারটা কাল হবে , সাধন পান্ডেদাকে বলিস আমি চিন্তায় আছি, বাই ফর নাও !!!"

Comments